বাংলাদেশের ইতিহাসে ভয়াবহতম বিমান দুর্ঘটনা

দেশজুড়ে ডেস্কঃ  বাংলাদেশের ইতিহাসে ভয়াবহতম বিমান দুর্ঘটনা। নেপালের স্থানীয় সময় দুপুর ২টা ২০ মিনিটে নেপালের ত্রিভূবন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্সের  বিমানটি বিধ্বস্ত হয়। বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ বলছে, যাত্রীদের মধ্যে নেপালি ৩৩ জন, বাংলাদেশি ৩২ জন, মালদ্বীপের একজন ও চীনা নাগরিক ছিলেন একজন।

সিভিল এভিয়েশনের একাধিক কর্মকর্তা বলেন, নেপালের এটিসি সিস্টেম পৃথিবীর সবেচেয়ে দুর্বল। কেবল এ কারণে গত সাত বছরে ১৫টি দুর্ঘটনা ঘটেছে। গতকালও বিমানটি সিগন্যাল না পেয়ে প্রায় আধঘণ্টা আকাশে ঘুরপাক খাচ্ছিল। জানা গেছে, গতকাল ইউএস বাংলা বিএস২১১ বিমানের ক্যাপ্টেনের দায়িত্বে ছিলেন আবিদ সুলতান ও ফার্স্ট অফিসার পৃথুলা রশীদ।

কেবিন ক্রু হিসেবে ছিলেন মো. শাফী কাউজা হোসেন ও শারমীন আক্তার। তবে একটি সূত্র বলছে, বিমানটিতে রাইডিং ইঞ্জিনিয়ার ছিলেন না। ৬৭ জন যাত্রী নিয়ে বেলা ১২টা ৫১ মিনিটে ঢাকার হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে বিমানটি ছেড়ে যায়। সর্বশেষ খবর অনুযায়ী ৫০ জন নিহত হয়েছেন বলে জানা গেছে।